বাংলাদেশের জন্য সহযোগিতার অঙ্গীকার ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের

হৃদ্যতাপূর্ণ পরিবেশে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারোর নিকট পরিচয়পত্র পেশ করেন বাংলাদেশের নয়া রাষ্ট্রদূত সাদিয়া ফয়জুননেসা। ১০ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতি ভবনে এ অনুষ্ঠানে ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কার্লোস ফ্রান্সা-সহ পদস্থ কর্মকর্তারা ছিলেন। রাষ্ট্রদূত সাদিয়াকে স্বাগত জানিয়ে প্রেসিডেন্ট জাইর তার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে নির্দেশ দিয়েছেন বাংলাদেশ-ব্রাজিলের মধ্যেকার বাণিজ্যিক সম্পর্ক বিশেষ করে কৃষিখাতে সহযোগিতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য।

দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ক বৃদ্ধিকল্পে সব ধরনের সহযোগিতার অঙ্গীকারও করেছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট। এ সময় প্রেসিডেন্ট জাইর বাংলাদেশের সুবর্ণ জয়ন্তি উপলক্ষে রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে বাংলাদেশের ১৮ কোটি বাঙালির প্রতি অভিনন্দন জানান এবং ব্রাজিলকে পৃথিবীর অন্যতম বৃহত্তম গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে দাবি করে প্রেসিডেন্ট জাইর উল্লেখ করেন যে, বন্ধুপ্রতিম সকল দেশের সাথে সম্পর্ক উন্নয়নে নিরন্তরভাবে কাজ করছে তার প্রশাসন।

এ সময় রাষ্ট্রদূত সাদিয়া ব্রাজিল-বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তির লগ্নে এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টকে শুভেচ্ছা জানান। দক্ষিণ আমেরিকায় বাংলাদেশের প্রথম মহিলা রাষ্ট্রদূত সাদিয়া বাংলাদেশের নেতা শেখ হাসিনার বিচক্ষণতাপূর্ণ নেতৃত্বে অদম্য গতিতে এগিয়ে চলার সংক্ষিপ্ত বিবরণী উপস্থাপনকালে উল্লেখ করেন যে, মারকোসুরের সাথে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষরের অভিপ্রায়ে বাংলাদেশ ইতিমধ্যেই আবেদন জানিয়েছে। এটি বাস্তবায়িত করতে প্রেসিডেন্ট জাইরের আন্তরিক সহযোগিতা প্রয়োজন।
উল্লেখ্য, মারকোসুর হচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকান আঞ্চলিক অর্থনৈতিক সংস্থা অর্থাৎ সদস্য দেশসমূহের মধ্যে সব ধরনের পণ্য-সামগ্রির অবাধ প্রবাহ, বাণিজ্য-সম্প্রীতি, অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির লক্ষ্যে পরস্পরের সহযোগী হওয়া। এর মূল সদস্য হচ্ছে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, প্যারাগুয়ে, উরুগুয়ে এবং ভ্যানেজুয়েলা। সহযোগী সদস্য হচ্ছে সুরিনাম, গায়ানা, কলম্বিয়া, ইকুয়েডর, পেরু, চিলি এবং বলিভিয়া। পর্যবেক্ষক হিসেবে রয়েছে নিউজিল্যান্ড এবং মেক্সিকো। বাংলাদেশ এই ফোরামের অন্তর্ভুক্ত হয়ে অর্থনীতি সমৃদ্ধির প্রত্যাশা পূরণে আরেকধাপ এগুতে চায় বলে মনে করা হচ্ছে।

পরিচয়পত্র হস্তান্তর উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ভবন প্যালাসিয়ো প্ল্যানাওতোতের সামনে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলনের ঘটনাও ঘটে। এ সময় স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তি উপলক্ষে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টকে বাংলাদেশ সফরের জন্যে শেখ হাসিনার আমন্ত্রণ পৌঁছে দেন রাষ্ট্রদূত সাদিয়া। এরপর সাদিয়া ফয়জুননেসাকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। সেখান থেকে নিজ অফিসে ফিরেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করে তার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাষ্ট্রদূত সাদিয়া।

Education Template

AllEscort